*Please select own language to translate. If need any code, write on comment box with your email address. I will send you.*

0
Bangladesh- ebhabe

Learn something about Bangladesh.

বিশ্বে যে কয়েকটি দেশ জাতিরাষ্ট্র হিসেবে মর্যাদা পেয়েছে , বাংলাদেশ তাদের মধ্যে অন্যতম। আয়তনের তুলনায় দক্ষিণ এশিয়ার জনবহুল রাষ্ট্র আমাদের এই বাংলাদেশ , যার সাংবিধানিক নাম গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ। ১৯৭১ সালে এ দেশ স্বাধীন ও স্বার্বভৌম দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় , যা এর আগে পূর্ব বাংলা নামে পরিচিত ছিল এবং পরে নব গঠিত দেশ পাকিস্তানের পূর্ব অঞ্চল নামে এবং এর পরে পূর্ব পাকিস্তান নামে পরিচিত হয়। ১৯৪৭ সালে বাংলাদেশের বর্তমান সীমান্ত প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন পাকিস্তানের দুই অংশ অর্থাৎ পশ্চিম পাকিস্তান ও পূর্ব পাকিস্তানের মধ্যে প্রথম বিরোধিতার প্রকাশ পায়। এসময় আওয়ামীলীগের উত্থান হয় এবং বাঙালী জাতির প্রধান রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়।

১৯৭০ সালের নির্বাচনে বাঙালী জাতির প্রধান রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়। তারপরেও সামরিক সরকার, ক্ষমতা হস্তান্তরে তাল বাহানা করে। পাকিস্তান সরকার শেখ মুজিবের সাথে গোলটেবিল বৈঠক করে। গোলটেবিল বৈঠক সফল হয়না বলে শেখ মুজিবকে পাকিস্তানের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জেনারেল ইয়াহিয়া খান গ্রেপ্তার করেন। অপারেশন সার্চলাইটের অংশ হিসাবে পাকিস্তানী সেনাবাহিনী বাঙালিদের উপর ২৫শে মার্চ গভীর রাতে নির্বিচারে আক্রমণ শুরু করে। রাতারাতি এই হামলার ফলে বিপুল সংখ্যক মানুষের প্রাণহানি ঘটে। বুদ্ধিজীবী ও সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীদের গণহত্যা করা ছিল সেনাবাহিনী ও তার স্থানীয় দালালদের অন্যতম লক্ষ্য। প্রায় ১ কোটি মানুষ বাংলাদেশ ছেড়ে ভারতে আশ্রয় নেয় শুধুমাত্র গণহত্যা থেকে বাঁচার জন্য। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে প্রাণহানির সংখ্যা আনুমানিক প্রায় ৩০ লক্ষ।

পাকিস্তানী সেনাদের দ্বারা নির্মম ভাবে ধর্ষিত হয় দুই থেকে চার লক্ষ বাংলাদেশী নারী । এসময় ভারতে আশ্রয় নিয়েছিল আওয়ামী লীগের অধিকাংশ নেতা । মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আমবাগানে তাঁরা অস্থায়ী সরকার গঠন করে। অস্থায়ী সরকারের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তাজউদ্দিন আহমদ।১৭ এপ্রিল এই সরকার শপথ গ্রহণ করে। পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর বিরূদ্ধে প্রায় ৯ মাস যুদ্ধ করে বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধারা। ভারতের সহায়তায় মুক্তিবাহিনী ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ১৯৭১ সালের  ডিসেম্বর মাসে পাকিস্তান সেনাবাহিনীকে পরাজিত করে। পাকিস্তান সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল নিয়াজী ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মিত্রবাহিনী প্রধান জেনারেল জগজিৎ সিং অরোরা’র কাছে আত্মসমর্পন করে। আটক হয় প্রায় ৯০,০০০ পাকিস্তানী সেনা, ১৯৭৩ সালে তাদেরকে পাকিস্তানে ফেরত পাঠানো হয়।

পশ্চিম পাকিস্তানের অন্যায়, অবিচার , শোষণ ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে মুক্তি যুদ্ধের (সশস্ত্র সংগ্রামের) মাধ্যমে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ সারা বিশ্বের কাছে স্বাধীন ও স্বার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিতি লাভ করে।স্বাধীনতা লাভের পর বাংলাদেশের উপর নেমে এসেছে বহু প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও দুর্ভিক্ষ যা মোকাবিলা করতে হয়েছে। এছাড়াও ঘটেছে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা এবং ঘটেছে সামরিক অভ্যুত্থান যা আমাদের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতাকে বারবার বাধাগ্রস্থ করেছে। ১৯৯১ সালে গণসংগ্রামের মাধ্যমে এদেশে গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে যার ধারাবাহিকতা আজও রয়েছে।

Post a Comment

 
Top